স্মরণসভায় বক্তারা বলেছেন, আনিসুল হক উঁচুমানের নেতৃত্বের গুণাবলীসম্পন্ন মানুষ ছিলেন। তার কর্মকাণ্ড ঢাকায় নাটকীয় পরিবর্তন এনেছিল। কর্মের মাঝে বেঁচে থাকবেন তিনি। বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি হোটেলে ইংরেজি দৈনিক এশিয়ান এইজ আয়োজিত আনিসুল হকের স্মরণসভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। এ সময় আনিসুল হকের বর্ণাঢ্য জীবনের ওপর একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেন, আনিসুল হকের কর্মকাণ্ড রাজধানী ঢাকায় নাটকীয় পরিবর্তন এনেছিল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেন, আনিসুল হকের মধ্যে ছিল উঁচুমানের নেতৃত্বের গুণাবলী। ঢাকা নগরবাসী তাকে কখনও ভুলতে পারবে না। কারণ তিনি তেজগাঁও থেকে অবৈধ ট্রাকস্ট্যান্ড এবং নগরীর অন্যান্য এলাকা থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের মতো দুঃসাহসিক কাজ করেছিলেন। দেশের তরুণদের মাঝে আনিসুল হক এক আদর্শ।

আনিসুল হককে নিয়ে স্মরণসভার আয়োজন করায় ইংরেজি দৈনিক এশিয়ান এইজকে ধন্যবাদ জানান তার স্ত্রী রুবানা হক। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র থাকাকালে আনিসুল হককে সর্বাত্মক সহযোগিতা করায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান তিনি। ইংরেজি দৈনিক এশিয়ান এইজের চেয়ারম্যান এম শোয়েব চৌধুরী বলেন, আনিসুল হক ছিলেন একজন চমৎকার এবং স্বচ্ছ ইমেজের মানুষ। তিনি স্মরণসভায় অংশগ্রহণের জন্য সবাইকে সাধুবাদ জানান। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে মেজর জেনারেল (অব.) শামীম চৌধুরী, লে. জে. (অব.) এম ফজলে আকবর, এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল আলম মহিউদ্দিনসহ ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ, ব্যাংকার, রাজনীতিবিদ, বিদেশি রাষ্ট্রদূত, সাংবাদিক, উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, শিক্ষাবিদ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

View Source PDF